করোনায় রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে অতি ধনীদের সম্পদ

0
62
করোনায় টেক বিলিয়নিয়ারের সম্পদ বেড়েছে ৪১ শতাংশ।ছবি: রয়টার্স

করোনা বিশ্বের অনেক মানুষকে দারিদ্র্যের দিকে টেনে নিয়ে যাচ্ছে। এমনকি করোনার আগের অবস্থানে ফিরে যেতে বিশ্বের যে কত সময় লাগবে, তার সঠিক অনুমান এখনো করতে পারছেন না বিশ্লেষকেরা। তবে এই করোনাই আবার অতিধনীদের পৌঁছে দিচ্ছে অনন্য উচ্চতায়। প্রযুক্তি জায়ান্টরা যেন আরও ফুলেফেঁপে উঠছেন।

সুইস ব্যাংক ইউবিএসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ বছরের এপ্রিল থেকে জুলাই পর্যন্ত বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের সম্পদ রেকর্ড সাড়ে ২৭ শতাংশ বেড়েছে। অর্থাৎ প্রায় ১০ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন ডলার (১ ট্রিলিয়ন=১ লাখ কোটি)। এর আগে ২০১৭ সালে বিশ্বব্যাপী শেয়ারের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় ধনীদের সম্পদ ৮ দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন ডলার বেড়েছিল। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ইউবিএস বলছে, কোভিড সংকটে শতকোটিপতিরা ‘অত্যন্ত ভালো’ কাজ দেখিয়েছেন। এমনকি শতকোটিপতির সংখ্যাও ২০১৭ সালের তুলনায় বেড়েছে। গতকাল বুধবার প্রকাশিত বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মারামারিজনিত কারণে দুই দশকের বেশি সময়ের মধ্যে এই বছর প্রথমবারের মতো চরম দারিদ্র্য বাড়তে চলেছে। আর ওই প্রতিবেদনের পর সুইস ব্যাংকের এই প্রতিবেদন প্রকাশ পায়।

শতকোটিপতিদের মধ্যে এ বছর সবচেয়ে লাভবান হয়েছেন শিল্পপতিরা, যাঁদের সম্পদ মে থেকে জুলাই—এই তিন মাসে ৪৪ শতাংশ বেড়েছে। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে বিশ্বব্যাপী লকডাউনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়। লকডাউনের পর একটি উল্লেখযোগ্য অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের জন্য বাজার চাহিদা বাড়ায় শিল্পপতিরা লাভবান হয়েছেন। অন্যদিকে টেক বিলিয়নিয়ারের সম্পদ বেড়েছে ৪১ শতাংশ।

ইউবিএস বলেছে, করোনার কারণে সারা বিশ্বেই প্রযুক্তি পণ্যের চাহিদা ব্যাপকভাবে বেড়েছে। সামাজিক দূরত্ব ডিজিটাল ব্যবসাকে ত্বরান্বিত করেছে। সেই সঙ্গে এই সংকট ওষুধ প্রস্তুতকারী এবং মেডিকেল ডিভাইস প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলোকেও লাভবান করেছে। কারণ এ সময়টায় বিশ্বের মূল আলোচনা ছিল স্বাস্থ্যসেবা ও করোনার চিকিৎসা নিয়ে।

ইউবিএস বলছে, ই-কমার্স জায়ান্ট আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস এবং টেসলার প্রতিষ্ঠাতা এলন মাস্ক দুজনের জন্যই এই গ্রীষ্ম সুসংবাদ এনেছে। তাঁদের শেয়ারের দাম বেড়েছে হু হু করে। সম্পদের পরিমাণ পৌঁছেছে নতুন উচ্চতায়।

এর আগে গত এপ্রিলে ফোর্বসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনার এই দুঃসময়েই কিনা বিশ্বের একদল শীর্ষ ধনীর মোট ধনসম্পদ ৩০ হাজার ৮০০ কোটি মার্কিন ডলার বেড়েছে। এর ফলে বিলিয়নিয়ারদের (১০০ কোটিতে ১ বিলিয়ন) সম্মিলিত ধনসম্পদের মূল্যমান বেড়ে ৩ দশমিক ২৩ ট্রিলিয়ন ডলার মানে ৩ লাখ কোটি ২৩ হাজার লাখে উন্নীত হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here